ভারতের বিশ্বকাপ দলে জায়গা পাবেন না ধোনি

৭০

টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন প্রায় সাড়ে পাঁচ বছর আগে। ওয়ানডেও ছেড়ে দেয়ার পরামর্শ পেয়েছেন জাতীয় দলের হেড কোচের কাছ থেকে। বাকি রয়েছে শুধু টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট। চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে লক্ষ্যে পরিণত করেই নিজেকে প্রস্তুত করছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবশেষ ম্যাচটি খেলেছেন সাত মাস আগে, ইংল্যান্ডের মাটিতে হওয়া ওয়ানডে বিশ্বকাপে। আর আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে খেলেছেন তারও ছয় মাস আগে। ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর থেকেই তাকে জাতীয় দলের বিবেচনায় রাখছেন না ভারতের নির্বাচকরা।

একপ্রকার বার্তাই দিয়ে দেয়া হয়েছে যে, ওয়ানডে ক্রিকেটে আর সুযোগ পাচ্ছেন না ধোনি। তবে দলের হেড কোচ রবি শাস্ত্রী বলেছিলেন, এবারের আইপিএলে ভালো কিছু করতে পারলে টি-টোয়েন্টি দলে সুযোগ পেতে পারেন এ সাবেক অধিনায়ক। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে স্থগিত হয়ে গেছে আইপিএলের ১৩তম আসর।

ফলে পুরোপুরি ঝুলে গেছে ধোনির ভবিষ্যৎ। তার ব্যাপারে কী সিদ্ধান্ত হবে? আদৌ দলে ফিরতে পারবেন কি না?- এ বিষয়ে স্পষ্ট উত্তর নেই কারও কাছেই। সেসবের তোয়াক্কাও অবশ্য করছেন না ধোনি। নিজের মতো করেই সারছেন প্রস্তুতি। যেনো সুযোগ পেলে সেরাটা উজাড় করে দিতে পারেন প্রিয় দলের জন্য।

তবে ভারতের আরেক সাবেক অধিনায়ক সুনিল গাভাস্কার আবার মনে করেন, ধোনির পক্ষে দলে ফেরা প্রায় অসম্ভব। বিশেষ করে চলতি বছরের অক্টোবর-নভেম্বরে হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলে ধোনিকে রাখা হবে না, ফলে নীরবেই অবসর নিতে হবে ধোনিকে- এমনটাই মানেই গাভাস্কার।

স্থানীয় দৈনিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে গাভাস্কার বলেছেন, ‘ধোনিকে ভারতের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে দেখলে আমি খুশিই হবো। কিন্তু আমার মনে হয় না এটা আদৌ হবে। কারণ দল এখন অনেক এগিয় গেছে। আমার মনে হয় সে নীরবেই ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে নেবে। কারণ ঢাক-ঢোল পিটিয়ে ঘোষণা দেয়ার মানুষ নয় ধোনি।’

আরো পড়ুন: